নিজের জীবনের মায়া ত্যাগ করে যে সাহসী পাইলট ও বিমান বালা যাচ্ছেন ভাইরাস সংক্রামিত এলাকায় বাংলাদেশীদের উদ্ধার করতে

জীবনের মায়া বাজি রেখে বাংলাদেশ বিমানের বোয়িং 777 একটি ফ্লাইট চায়নার ভাইরাস কবলিত এলাকা হুবেই শহরে যাচ্ছে  350 জন বাংলাদেশি অভিবাসীকে বাংলাদেশে

ফিরিয়ে আনতে, সেখানে আটকা পড়েছেন বাংলাদেশি ছাত্র-ছাত্রীসহ তাদের পরিবার এবং অনেক ব্যবসায়ী।  মোট চারজন পাইলট এবং সাতজন কেবিন ক্রু সহ বিমানটি রওনা দিবে। যেখানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পাইলট এবং বিমান যেতে ভয় পায় নিজের জীবনকে রিক্স মনে করে বিশ্বের সকল দেশের বিমান এবং পাইলটরা চায়না
এই ভাইরাস কবলিত এলাকায় যাওয়া থেকে বিরত রয়েছেন  সেখানে বাংলাদেশের সাহসী চারজন পাইলট এবং ৭ জন কেবিন ক্রু নিজের জীবনের 350 জন বাংলাদেশিকে উদ্ধার করতে রওনা দিয়েছে
আজ চীনের ইউহানে আটকে পড়া বাংলাদেশীদের ৩৬১ জনকে যথাযথ স্ক্রিনিং এর মাধ্যমে দেশে ফিরিয়ে আনতে একটি বিশেষ বিমান রওনা দিয়েছে।

সাথে সেনাবাহিনীর ডা ও যাচ্ছেন 



ছবির ৩ জন ডাক্তার (২ জন আর্মি মেজর ডা. মিনহাজ, ডা. ফাতেহা, একজন ৩৩ বিসিএস কর্মকর্তা ডা. মাহবুব)সেই বিশেষ বিমানে চিকিৎসা কর্মকর্তা হিসেবে যাচ্ছেন জীবনের ঝুকি নিয়ে। সাথে আছেন বিমানের পাইলটসহ অন্যান্য কেবিন ক্রুগণ।

বাংলাদেশে চিকিৎসা সংক্রান্ত জরুরী পরিস্থিতিতে চিকিৎসকগণ সব সময়েই অগ্রনী ভূমিকা রেখেছেন,
জীবন বাজি রেখে কাজ করেছেন, নিপাহ সংক্রমন, ডেঙ্গু,
রানা প্লাজা দুর্ঘটনা প্রতিটি ঘটনাতেই চিকিৎসকেরা সর্বোচ্চ শ্রম দিয়েছেন এবং পেশাগত দ্বায়িত্ব পালন করতে গিয়ে জীবনও দিয়েছেন!
এই ত্যাগ ও শ্রম মূল্যায়িত হোক,
চিকিৎসা পেশাজীবীদের প্রতি
দেশের মানুষের আস্থা ও সম্মান বৃদ্ধি পাক,
এই দোয়া ও শুভ কামনা করছি।

No comments

Powered by Blogger.