জুনের তৃতীয় সাপ্তাহ থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট শুরু।


ডেস্ক রিপোর্ট : করোনাভাইরাস মহামারীতে তিন মাস ব্ন্ধ থাকার পর জুন মাসের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল শুরু হতে যাচ্ছে। ধারনা করা হচ্ছে ১৬ জুন থেকে ফ্লাইট চলাচল শুরু হবে।

বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহিবুল হক সোমবার গণ মাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।তিনি বলেন, “জুনের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে আমরা আন্তর্জাতিক গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করব। প্রথমে আমরা লন্ডনে যাত্রা করব।”ফ্লাইট শুরু হওয়ার সুনির্দিষ্ট তারিখ পরে জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) চেয়ারম্যান মো.মফিদুর রহমান বলেন, “আমরা আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনার জন্য প্রস্তুত রয়েছি। তবে কবে থেকে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু হবে সেই সময়টা আমরা পরে জানিয়ে দেব।”তিনি জানান, প্রথমে লন্ডন ও কাতারে ফ্লাইট পরিচালনার পরিকল্পনা হচ্ছে।“বাংলাদেশ থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লন্ডন যাবে। ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ চাইলে
তাদের ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে। অন্যদিকে কাতার থেকে কাতার এয়ারওয়েজ ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে।”করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে সারা বিশ্বেই যাত্রীবাহী বিমান চলাচল সীমিত হয়ে পড়লে গত মার্চ মাস থেকে বাংলাদেশ থেকে প্রায় সব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যায়।গত ১ জুন থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান চলাচল শুরু হয়েছে। তবে চীন বাদে আর কোনো আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল পুরোদমে শুরু হয়নি এখনও।করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে গত ১৬ মার্চ থেকে যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের অন্য সব দেশ থেকে যাত্রীদের আসা বন্ধ করে বাংলাদেশ। পরে অন্যান্য দেশের সঙ্গেও ফ্লাইট চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।কয়েক ধাপে আন্তর্জাতিক ও আভ্যন্তরীণ গন্তব্যে যাত্রীবাহী বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানোর পর আভ্যন্তরীণ তিনটি রুটে ১ জুন থেকে ফ্লাইট চলার সিদ্ধান্ত জানায় বেবিচক।তবে আন্তর্জাতিক রুটে যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ ১৫ জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়।তবে চার্টার্ড ফ্লাইট ও কার্গোবাহী ফ্লাইট, এয়ার অ্যাম্বুলেন্স ও জরুরি অবতরণ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত আছে।

তথ্য দিয়েছে – এভিয়েশন নিউজ

No comments

Powered by Blogger.