এবার কি মালয়েশিয়ায় নারী শ্রমিক আসবে

 মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার উন্মুক্ত করন সংক্রান্ত এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (২৩ নভেম্বর) ঢাকায় ফিমেইল ওয়ার্কার রিক্রুটিং এজেন্সি এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ফোরাব) এ সভার আয়োজন করে। 

জানা যায়, এই শ্রমবাজারটি উন্মুক্ত হচ্ছে মালয়েশিয়ান ন্যাশনাল এসোসিয়েশন অব এমপ্লয়মেন্ট এজেন্সিস (পিকাপ) ও ফিমেইল ওয়ার্কার রিক্রুটিং এজেন্সি এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ফোরাব) এর মাধ্যমে।


সভায় জানানো হয়, কর্মী প্রেরণের ক্ষেত্রে সরকারিভাবে দীর্ঘ পথ অতিক্রম করতে হয় তাই পিকাপের প্রস্তাব হচ্ছে প্রাথমিকভাবে ১০ থেকে ১৫ হাজার নারী কর্মী পাঠাতে তারা সরকারের কাছ থেকে অনুমোদন নিবে। পরে ফোরাবের মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া চুড়ান্ত করবে, তবে সেটি সরকার মনিটর করবে।

এছাড়া নতুন শ্রমবাজার হিসেবে তাইওয়ান, চীনের সাংহাই প্রদেশ, তুরস্কসহ বেশ কিছু দেশের শ্রমবাজার উন্মুক্ত করতে ফোরাবের আলোচনা চলছে এবং শীগ্রই এই বিষয়ে জানানো হবে বলেও সভায় বলা হয়।

এদিকে ফোরাবের এই উদ্যোগে নতুন শ্রমবাজার উন্মুক্ত হলে বিদেশে বাংলাদেশি নারী কর্মী প্রেরণের সুবর্ণ সুযোগ হবে বলে জানায় ফোরাব।

আলোচনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফোরাবের সভাপতি আবদুল আলিম। বক্তব্য রাখেন- ফোরাবের সিনিয়র সহ সভাপতি কে এম মোবারক উল্ল্যাহ শিমুল, সহ সভাপতি ফজলুল মতিন তৌহিদ, ফোরাবের মহাসচিব মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, ফোরাবের সহ সভাপতি মতিউর রহমান খান, ফোরাবের ইসি সদস্য কেফায়েত উল্লাহ মামুন।

এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন, বায়রার অর্থ সচিব সিরাজ উদ্দিন মজুমদার। বায়রার সাবেক মহাসচিব আবুল বাসার, মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, মোহাম্মদ আবদুল হামিদ বিশ্বাস, আলমগীর চৌধুরী প্রমুখ।

সূত্র প্রবাস বার্তা 

 

No comments

Powered by Blogger.