মালয়েশিয়া বাসীদের জন্য সুখবর দিলেন প্রধানমন্ত্রী

 টমালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন ক্ষমতায় আসার পর থেকে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়েছে ক্ষমতায় আসার পর থেকে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়েছে  পরিস্থিতি 2020 

সালের


মার্চ মাসে তিনি ক্ষমতায় আসেন এবং মার্চ মাস থেকে শুরু লকডাউন।  এত কঠিন সময় পার করে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী এদেশের জনগণের জন্য বেশ কয়েকটি কঠিন পদক্ষেপ নিয়েছেন যার ফলে প্রথম ধাপে মালয়েশিয়া করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সক্ষম হয়েছে। বিশেষ করে লক্ষ্য করলে দেখা যায় ইউরোপ-আমেরিকার দের মত উন্নত দেশগুলিতে প্রথম ধাপে করোনার-হানা যেখানে লক্ষ লক্ষ হাজার হাজার মানুষ মৃত্যুবরণ করেছে সেখানে মালয়েশিয়ায় মাত্র 300 মানুষের মৃত্যু বরণ করেছে এ যাবৎ করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সক্ষম হয়েছে মালয়েশিয়া কিন্তু দ্বিতীয় ধাপে আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে করনা ভাইরাসের আক্রমণ তারপরও মালয়েশিয়া সরকার উঠে-পড়ে বসেছে নিয়ন্ত্রণ করার। তবে সবচেয়ে বড় আশার বাণী হচ্ছে মালয়েশিয়ার করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য   সরকার ইতিমধ্যেই চায়নার সাথে চুক্তি করেছে ভ্যাকসিন আনার ব্যাপারে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী এ ঘোষণা দিয়েছেন যা মালয়েশিয়া প্রবাসী এবং মালয়েশিয়ার নাগরিক এবং এ দেশে বসবাসরত সবার জন্য সুসংবাদ বটে কারণ আসার সাথে সাথেই মালয়েশিয়ায় কর্মযজ্ঞ পুরোদমে শুরু হয়ে যাবে এবং আশা করা যায় লকডাউন পুরোদমে উঠিয়ে নেয়া হবে এবং দেশি-বিদেশি আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল শুরু হয়ে যাবে ব্যবসা-বাণিজ্য তাদের আগের মত পুরোদমে চালু হয়ে যাবে। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন 2021 সালের প্রথম থেকেই এদেশের করোনা ভাইরাসের মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন 2021 সালের প্রথম থেকেই এদেশের করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন আনাহবে

No comments

Powered by Blogger.